আবার পেয়েছি ফিরে

কতদিন পরে দেখা দিলে তুমি,
কথায় ছিলে লুকিয়ে হে মোর নয়নমনি?
ভেবেছিলাম মাঝে দেখা হবে তব সনে
কত কথাই না বলব তোমার কানে কানে|
তোমাকে দেখে এই হৃদয় করব ধন্য
তোমার মায়ার বন্ধনেতে থাকব আমি আচ্ছন্ন|
তোমার পানে তাকিয়ে তোমাকে শুধুই দেখব
মণের মাঝেতে প্রতিদিন তোমারই ছবি আঁকব|

কিন্তু, বৃথা এ স্বপ্ন, বৃথা এ কল্পনা,
স্বীকার হয়নি (তোমার কাছে) মোর এ কাতর প্রার্থনা|
তবে এর তরে আজ দুঃখ করি না আর
চোখের সামনে তোমাকে যে ফিরে পেয়েছি আবার|

কিন্তু ভাবি – আবার কি তুমি সরে যাবে মোর কাছ থেকে
নাকি আশ্রয় নেবে এ তৃষ্ণার্ত হৃদয় মাঝে|
জানি না তোমাকে পাব কিনা এ জীবন যুদ্ধের শেষে
তবু মুছবে না কভু তোমার ছবি মোর এ হৃদয় থেকে|

বিরহ বেদনা

যদি শুধু দুঃখ দিতেই চেয়েছিলে,
তবে কেন আমায় ভালবেসেছিলে?
আমিতো তোমাকে দুঃখ দিইনি
তবে কেন তুমি সরে গেলে আমাকে একা ফেলে?

যেদিন হলো মোদের দেখা প্রথম;
ভেবেছিণু ব্যর্থ হয়নি জনম
তুমি হবে মোর জীবনসাথী
একসাথে কাটাব দিবস রাতি
সুন্দর করে তুলব জীবন একই সঙ্গে মিলে ||

কত স্মৃতি আজ নয়ণে ভাসছে
কত কথা আজ মনেতে আসছে
এই স্মৃতি নিয়ে এবার কাটাব জীবন
যতদিন না আসে আমার মরণ
তোমার ছবি রাখব এঁকে আমার হৃদয় তলে ||

আগন্তুক

মোর হৃদয়ে আজ যার আমন্ত্রণ,
জানাই তারে আমি সাদর নিমন্ত্রণ |
তার আগমনে আজ কেটেছে অবসাদ –
আজ আমি তাই হয়েছি উন্মাদ |
উদগ্রীব এ হিয়া প্রতিক্ষা করে তার পথপানে,
আসবে সে পরে, তবু এ মন কিছুতেই না মানে |
তার সামনে আসতে লাগে মন খুব ডর,
কাঁপতে থাকে পদযুগল, বাধা দেয় যে কর |

মণের সুতীব্র চিৎকার চায় মুখ হতে মুক্ত হতে –
প্রতারণা করে ওষ্ঠ, জিহ্বা আরস্ঠ হয়ে আসে,
প্রতিবারই এ হিয়া চায় জানতে –
সে কি মোর ভালবাসে?

আমি যে তারে ভালোবেসেছি,
মণ, প্রাণ, সবকিছু তারে সোঁপেছি,
এখন হতে জীবনভর তারে আমি শুধু চাইব,
মিলনক্ষণ আসুক বা না, তারে আমি ভালবাসব ||

প্রথম দেখা

এখনো নয়ণে ভাসে মোর সেইদিনের ছবি,
মণে আছে তখন পস্চিমেতে ঢলেছিল রবি,
সেদিন ভেবেছিনু, এ নয় গোধুলিবেলা, এ ঊষা,
সবিতার কিরণে আলোকিছে আজ চির অন্ধ নিশা
ক্ষণিক পরে বুঝিনু আমি এ আলো নয়কো অরুণের,
নয় বাস্তব, এ শুধু কল্পনা মোর প্রাণ আর মণের |
গোধুলি লঘ্ন আলোকিছে যে, সে নয় দিনমণি
নহে ধুমকেতু, নহে চন্দ্রমা, সে এক অপরুপা রমনী |
মন বলিল, চিনি তারে, সে নয় আজনবী –
বারে বারে মোর স্বপ্নে আসা, সে-ই মোর মনমানবী |
পড়তে থাকুন